দাঁতের স্কেলিং কি এবং খরচ কত | Teeth Scaling in Bangla

5/5 - (1 vote)

Teeth Scaling in Bangla | দাঁতের স্কেলিং: দাঁত স্কেলিং হলো দাঁতের চিকিৎসা পদ্ধতি ৷ যার মাধ্যমে দাঁতের ক্ষতিকর প্লেক এবং টারটার দূর করে দাঁত ও মাড়িকে সুস্থ্য রাখা যায় ৷ এই দাঁত স্কেলিং কি, এটি কেন করবেন, কিভাবে করা হয় এবং দাঁত স্কেলিং করার খরচ কেমন সব জানবেন আজকের আর্টিকেলে ৷ শুধু তাই নয় দাঁত স্কেলিং এর উপকারিতা এবং করা পর করণীয় কি সবকিছু ৷ সুতরাং আমাদের সাথেই থাকুন ৷

দাঁতের স্কেলিং | Teeth Scaling in Bangla

দাঁতের স্কেলিং কি এবং খরচ কত | Teeth Scaling in Bangla

দাঁতের স্কেলিং কি?(What is dental scaling)

সহজ কথায় দাঁত স্কেলিং বলতে দাঁত পরিষ্কার করা বুঝায় ৷ এ পদ্ধতিতে অতিস্বনক স্ক্যালার বা আল্ট্রাসনিক স্কেলার এবং হ্যান্ড স্কেলার ব্যবহার করে দাঁতের উপরিভাগ এবং মাড়ির নিচের অংশ থেকে জমে থাকা প্লাক, জিঞ্জিভাইটিস এবং টারটার তোলে ফেলা হয় ৷ মুখ গহ্বরের দাঁত ও মাড়ির রোগ থেকে রক্ষা এবং উজ্জ্বল-চকচকে দাঁতের জন্য ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী স্কেলিং করা যেতে পারে ৷ উন্নত বিশ্বে দাঁত ও মাড়ি ভালো রাখার জন্য নিয়মিত দাঁতের স্কেলিং করানো হয় ৷

কেন দাঁতের স্কেলিং করা উচিৎ?(Why should teeth be scaled)

ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ি নিয়ম-মাপিক দাঁতের স্কেলিং করা উচিতৎ ৷ কেননা আমাদের দাঁতের উপরিভাগে এবং মাড়ির নিচে এমন একটি আস্তরণ জমা হয় যাকে বলা হয় প্লাক এবং টারটার ৷ এটি ধীরে ধীরে জমা হতে শুরু করে এবং যদি ভালোভাবে নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করা না হয় তাহলে এই জমে থাকা টারটার এবং প্লাগ শক্ত হতে শুরু করে ৷ তখন দাঁত ব্রাশের মাধ্যমে এটি তোলে ফেলা সম্ভব নয় ৷ প্লেগ এবং টারটার মাড়ির নিচে জমা হয়ে মাড়ির প্রদাহের কারণ হতে পারে এবং মাড়ি থেকে রক্তপাত হয় ৷ সঠিক সময়ে চিকিৎসা করা না গেলে পেরিওডন্টাল রোগের দিকে অগ্রসর হতে পারে ৷

সুতরাং এই টারটার এবং ব্যাকটেরিয়া দ্বারা গঠিত হালকা হলুদ স্তর(প্লাগ) আমাদের মুখের কিংবা দাঁতের সৌন্দর্য(হাসির নান্দনিকতা) নষ্ট করে এবং মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি করে ৷ এমতা অবস্থায় আমাদের একজন দাঁতের চিকিৎসকের কাছে যেতে হয় এবং ডাক্তার মুখের অবস্থা দেখে স্কেলিং করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন ৷

আরও পড়ুনঃ

কতদিন পর পর দাঁত স্কেলিং করতে হয়?(How often to do teeth scaling)

দাঁত স্কেলিং বিশেষভাবে নির্ভর করে আপনার দাঁত এবং মাড়ির অবস্থার উপর ৷ জমে থাকা টারটার এবং প্লেগ আপনার দাঁতে কেমন আস্তরণ তৈরি করছে এবং মাড়ির কোনো ক্ষতি করছে কিনা সর্বোপরি মুখের সার্বিক অবস্থা বিবেচনা করে ডাক্তার স্কেলিং করার জন্য একটি পরামর্শ দিয়ে থাকে ৷

একটি সাধারণ নির্দেশিকা হিসাবে, অনেক ডেন্টিস্ট প্রতি ছয় মাসে একবার নিয়মিত দাঁত পরিষ্কার করার এবং স্কেলিং করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। বছরে দুই বার স্কেলিং আপনার মুখে জমে থাকা প্লেগ ও টারটার রিমোভ করে এবং মাড়ির রোগ এবং দাঁতের অন্যান্য সমস্যার ঝুকি থেকে রক্ষা করে ৷

যাইহোক, কিছু ব্যাক্তির ছয় মাসের আগেই স্কেলিং করার প্রয়োজন হতে পারে ৷ যারা ধূমপান করে, পান খায় এবং প্রতিদিন নিয়মিত দাঁত ব্রাশ না করে তাদের ক্ষেত্রে ৷ আবার যাদের এমন বদ অবস্যাস না থাকে এবং নিয়মিত দিনে দুইবার খাওয়ার পর দাঁত ব্রাশ করে তাদের বছরে একবার স্কেলিংই যথেষ্ট ৷ তবে সর্বোপরি একজন দক্ষ ডেন্টিস্টই বলে দিবে আপনার দাঁতের স্কেলিং করার প্রয়োজন আছে কিনা ৷

দাঁত স্কেলিং করলে কি ক্ষতি হয়?(Teeth scaling side effects)

দাঁত স্কেলিং হলো দাঁত ও মাড়ি ভালো রাখার জন্য এবং এতে জমে থাকা ক্ষতিকর প্লেক ও টারটার রিমোভ করার কার্যকর পদ্ধতি ৷ উন্নত বিশ্বে প্রতি ছয়মাসে ডাক্তারের পরামর্শ অনুসারে দাঁতের স্কেলিং করে থাকেন ৷ অনেকের মনে প্রশ্ন, দাঁত স্কেলিং করলে কি ক্ষতি হয়?

আসলে দাঁতের স্কেলিং করলে কোনো ক্ষতি হয় না বরং না করলেই ক্ষতি হতে পারেন ৷ কেননা আমরা খাবার খাওয়ার পর খাদ্যকনা আমাদের দাঁতে ফাকে জমে থাকে ৷ নিয়মিত ব্রাশ না করলে ধীরে ধীরে প্লেক এবং টারটার জমে শক্ত আস্তরণ তৈরি করে ৷ তখন আর ব্রাশের মাধ্যমে সেটি তোলের ফেলা যায় না ৷ আর এটি তোলার জন্য বর্তমানে স্কেলিং একমাত্র চিকিৎসা পদ্ধতি ৷

দাঁতের স্কেলিং পদ্ধতিতে ডেন্টিস্ট আল্ট্রাসনিক স্কেলার এর মাধ্যমে পানির উচ্চ প্রবাহের মাধ্যমে এটি ছাড়িয়ে ফেলেন ৷ দাঁতের স্কেলিং একমাত্র চিকিৎসা পদ্ধতি যা ব্যথামুক্তভাবে জমে থাকা এই ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া দূর করতে পারে ৷ তবে সামান্য সময়ের জন্য দাঁত একটু শিনশিন করতে পারে ৷

তবে দাঁতের স্কেলিং করার ক্ষেত্রে অবশ্যই একজন দক্ষ এবং অভিজ্ঞ ডেন্টিস্ট দিয়ে করতে হবে ৷ কেনণা অদক্ষ স্কেলিং এবং উন্নত সরঞ্জাম এর অভাবে দাঁতের এনামেল বা মাড়ির ক্ষতি হতে পারে ৷

দাঁত স্কেলিং এর খরচ কত? (Tooth scaling cost in Bangladesh)

আপনারা যারা দাঁত স্কেলিং করার জন্য অলরেডি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বা নিবেন তাদের মনে একটি প্রশ্ন থাকে যে, দাঁত স্কেলিং এর খরচ কত হতে পারে ৷ প্রিয় ভিউয়াস দাঁতের স্কেলিং এর খরচ জানার আগে আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে দাঁত ও মাড়িতে জমেথাকা প্লেগ, ক্যালকুলাস এবং টারটার কি পরিমানে রয়েছে ৷

মুখের অবস্থার উপর ভিত্তি করে চিকিৎসক দাঁত স্কেলিং করার এমাউন্ট ধার্য করে ৷ এর তিনটি স্টেপ রয়েছে যেমন ১ম স্টেপ, ২য় স্টেপ ও ৩য় স্টেপ ৷ ১ম স্টেপ যেটা সেটা হলো আপনার মুখে ক্যালকুলাসের পরিমান যদি সামান্য থাকে এবং ব্রাশ করলে কোনো রক্তপাত হয় না ৷ সেক্ষেত্রে আনুমানি ৫০০-৭০০ টাকার মতো হতে পারে ৷ ২য় স্টেপ হলে আপনার মুখে প্লেগ এবং টারটারের পরিমান বেশি হতে পারে এবং টুথব্রাশ করার সময় এবং শক্ত কিছু খাওয়ার সময় ব্লাডিং হতে পারে ৷ সেক্ষেত্রে চিকিৎসক দাঁত স্কেলিং এর জন্য আনুমানিক ৭০০-১২০০টাকার মতো নিতে পারে ৷ আর থার্ডস্টেপ যেটা সেটা হলো আপনার দাঁত এবং মাড়ি প্লেগ জমে মারাত্মক আকার ধারন করছে এবং জিঞ্জিভাইটিস থেকে পেরিওডন্টাল এর দিকে অগ্রসর হতে পারে ৷ যদি আপনি থার্ডস্টেপে থেকে থাকেন তাহলে আনুমানি ১৫০০-৩০০০টাকা পর্যন্ত লাগতে পারে ৷ তবে টাকার পরিমান সম্পূর্ণই নির্ভর করে আপনার মুখের অবস্থা ও চিকিৎসক ও প্রতিষ্ঠানের উপর ভিত্তি করে ৷

দাঁতের স্কেলিং কিভাবে করা হয়?(How is dental scaling done)

‘স্কেলিং’ হল দাঁতের একগুঁয়ে ময়লা অপসারণের একটি প্রযুক্তিগত এবং বৈজ্ঞানিক উপায়। স্কেলিং করার মাধ্যমে দাঁত ও মাড়িতে জমে থাকা জিঞ্জিভাইটিস ও প্লাগ দূর করা হয় ৷ দাঁত ও মাড়ির অনেক সমস্যা থেকে মুক্তি দেয় ৷ অনেকের প্রশ্ন দাঁতের স্কেলিং কিভাবে করায় ৷ দাঁতের স্কেলিং আধুনিক ও ব্যাথামুক্ত পদ্ধতি, যা দাঁত ও মাড়িতে জমে থাকা ফলক এবং টারটার দূর করতে ব্যবহার করা হয় ৷ প্রথমে একজন ডেন্টিস্ট ভালো করে মুখের অবস্থা পর্যবেক্ষন করেন ৷ পরে প্রয়োজন হলে স্কেলিং করেন ৷ স্কেলিং করার জন্য রোগির আরামের জন্য কখনও অ্যানেশেসিয়া প্রয়োগ করে থাকেন ৷

স্কেলিংয়ে ব্যবহৃত প্রাথমিক সরঞ্জামগুলির মধ্যে রয়েছে অতিস্বনক স্ক্যালার বা আল্ট্রাসনিক স্কেলার এবং হ্যান্ড স্কেলার। আল্ট্রাসনিক স্কেলার দিয়ে উচ্চ-ফ্রিকোয়েন্সি কম্পন তৈরি করে যা জমে থাকা ফলক এবং টারটারকে ভেঙে ফেলে এবং একই সাথে পানির একটি সূক্ষ্ম স্প্রে করে ধৌত করে ৷ এবং মুখে জমাকৃত দূষিত পানি অন্য একটি পাইপের মাধ্যমে চুষে নিয়ে যায় ৷ অন্যদিকে, হ্যান্ড স্ক্যালার ব্যবহার করে জমে থাকা শক্ত আস্তরন সরিয়ে ফেলা হয় ৷ এভাবে ধীরে ধীরে চিকিৎসক স্কেলিং করে থাকেন ৷

দাঁত স্কেলিং এর উপকারিতা(Benefits of teeth scaling)

দাঁত স্কেলিং ডেন্টিস্ট আপনার মুখ পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পরীক্ষা করে অনুমতি দিয়ে থাকে ৷ মুখের অধিকাংশ রোগ দাঁত স্কেলিং না করার কারনে হয়ে থাকে ৷ এদের মধ্যে সাধারণ সমস্যা হলো দাঁতের ক্ষয়রোগ, মাড়ির প্রদাহ এবং রক্তপাত হওয়া ৷ যদি সঠিক সময় চিকিৎসা না করা হয়, তবে এটি পেরিওডন্টাল রোগের দিকে অগ্রসর হতে পারে যা মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে ৷

প্লাগ জমে এবং ব্যাকটেরিয়া অ্যাসিড তৈরি করে যা দাঁতের এনামেল ক্ষয় করে। তাছাড়াও ব্যাকটেরিয়া সালফার যৌগ নিঃসরণ করে টারটার তৈরি করে যা মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টির কারণ হতে পারে ৷ সঠিক সময় চিকিৎসা না করলে কার্ডিওভাসকুলার রোগ এবং শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণের মতো ভয়াবহ আকার ধারণ করতে পারে ৷

  • প্লেগ ও টারটার অপসারণ: স্কেলিং করে দাঁত ও মাড়ির নিচে জমে থাকা প্লেগ এবং টারটার দূর করা যায় ৷ দাঁতের এনামেল এবং মাড়িকে ক্ষতি থেকে রক্ষা করা যায় ৷
  • মাড়ির রোগ প্রতিরোধ: দাঁতের মধ্যে এবং মাড়ির নিচের প্লেক ও জিঞ্জিভাইটিস দূর করে মাড়িকে সুস্থ্য রাখে ৷ মাড়ির প্রদাহ থেকে মুক্তি দেয় ৷
  • মুখের দূর্গন্ধ দূরঃ স্কেলিং জমে থাকা ব্যাকটেরিয়া সরিয়ে ফেযে নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ দূর করে যাকে বলা হয় হ্যালিটোসিস প্রতিরোধ ৷ এতে শ্বাস-প্রশ্বাসকে সতেজ করে এবং মুখের স্বাস্থ্যের উন্নতি করে।
  • দাঁতের ক্ষয় প্রতিরোধ: স্কেলিং এর মাধ্যমে দাঁতের প্লেগ ও টারটার দূর করা হয় এবং দাঁতের ক্ষয়রোগ থেকে রক্ষা করে ৷
  • সৌন্দর্য বৃদ্ধি: স্কেলিং পলিশিংয়ের সাথে মিলিত দাঁতের কালো দাগ এবং হলুদ আস্তরণ দূর করে দাঁতকে উজ্জ্বল ও চকচকে করে তোলে ৷
  • রোগ প্রতিরোধ: স্কেলির ফলে দাঁতের প্লেগ ও টারটার দূর করা হয় ৷ এতে পিরিয়ডন্টাল রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায় ৷ তাছাড়াও কার্ডিওভাসকুলার রোগ এবং শ্বাসযন্ত্রের সংক্রমণের মতো ভয়াবহ রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায় ৷

দাঁত স্কেলিং করার পর করনীয়(What to do after scaling teeth)

দাঁত স্কেলিং এর পরে কি কি নিয়ামাবলি অনুসরণ করতে হয় তা জানা উচিতৎ ৷ দাঁত স্কেলিং এর পর ডাক্তার কিছু পরামর্শ দিয়ে থাকেন এবং প্রয়োজনমতো প্রেসক্রিপশন দিয়ে থাকেন ৷ অনেকক্ষেত্রে স্কেলিং এর পর ৩০ মিনিট পর্যন্ত কিছু খাওয়া ও পান করা থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়ে থাকেন ৷ ফ্লোরাইড দাঁতকে শক্তিশালী করতে সাহায্য করে এবং ক্ষয়ের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত সুরক্ষা প্রদান করে। তাই ফ্লোরাইড টুথপেস্ট দিয়ে নিয়মিত ব্রাশ করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন ৷

স্কেলিং এর পর একটি নির্ধারিত মাউথওয়াশ ব্যবহার করা এবং শক্ত খাবার না খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন ৷ স্কেলিং করার পরে হালকা দাঁতের সংবেদনশীলতা অনুভব করতে পারেন, যা কয়েক দিনের মধ্যে কমে যায়। দাঁতের চেক-আপ এবং পরিষ্কারের জন্য নিয়মিত ডাক্তারের সাথে যোগাযোগের পরামর্শ দিয়ে থাকেন ৷

Disclaimer: উল্লেখিত তথ্য শুধুমাত্র সাধারণ তথ্যের উদ্দেশ্যে এবং একটি ধারনা নেওয়ার জন্য ৷ এটি কখনই দক্ষ চিকিৎসকের বিকল্প হতে পারে না ৷ তাই দাঁতের যেকোনো চিকিৎসার জন্য একজন দক্ষ ডেন্টিস্টের সরণাপন্য হবেন ৷