হলদেটে ও কালো দাঁত সাদা করার উপায় | Whiten Teeth at Home

5/5 - (1 vote)

দাঁত সাদা করার উপায় | Whiten Teeth at Home in Bangla: হলদে দাঁত সাদা করা, দাঁতের কালো দাগ দূর করতে এবং সর্বোপরি দাঁত ঝকঝকে সাদা করার কিছু পরামর্শমূলক ধারণা দেওয়া হলো ৷ পুরো আর্টিকেলটি পড়ুন এবং প্রিয়োবিডির সাথে থাকুন ৷

দাঁত শুধু খাবার চিবানোর জন্য নয়, এটি একটি মুখের সৌন্দর্য ৷ আমরা কথা বলতে কিংবা হাসতে দাঁত দেখা যায় ৷ ঝকঝকে সাদা দাঁত আপনার হাসিকে করে তোলে আরও আকর্ষনীয় ৷ কিন্তু দাঁত যদি হয় হলুদ কিংবা কালো, তাহলে আমাদের কথা বলা কিংবা হাসিই হতে পারে লজ্জার কারণ ৷ মুখে ময়লা জমে এবং ডেন্টাল প্ল্যাক হিসেবে দাঁতের আস্তরণ তৈরি করে ৷ শুধু তাই নয় এই প্ল্যাক পরবর্তীতে মাড়ির প্রদাহসহ নানান মৌখিক সমস্যা সৃষ্টি করে ৷ তাই আমাদের উচিত একজন দক্ষ ডেন্টিস্টের পরামর্শ নেওয়া ৷ আমরা কিভাবে ঘরোয়া উপায়ে দাঁত সাদা করবো নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো ৷

হলদেটে দাঁত সাদা করার উপায়(Ways to whiten yellow teeth)

দাঁত সাদা করার উপায় | Whiten Teeth at Home in Bangla

দাঁতের হলুদ আস্তরণ বা দাঁত হলদে দেখা এটি বিভিন্ন কারণে হতে পারে ৷ এর মধ্যে রয়েছে খাদ্যাভ্যাস, জীবনযাত্রা, বদ অভ্যাস এবং পরিবেশের পরিবর্তন ইত্যাদি ৷ অনেক সময় হলুদ ও ময়লা দাঁতের কারণে মানুষ মন খুলে হাসতে পারে না? নোংরা ও হলুদ দাঁত মুখের সৌন্দর্য নষ্ট করে এবং মুখে দুর্গন্ধ সৃষ্টি করে ৷

কেন দাঁত হলুদ হয়ঃ দাঁত হলুদ হওয়ার পিছনে রয়েছে আমাদের খাদ্যঅভ্যাস, লাইফস্টাইলের পরিবর্তন ৷ আপনি যদি নিয়মিত দাঁত ব্রাশ না করেন, তাহলে দাঁতে প্লেক(ব্যাকটেরিয়া, খাদ্যকণা ও লালার সংমিশ্রণ) জমতে থাকে ৷ আর দীর্ঘদিন ধরে ব্রাশ বা মুখের যত্ম না নিলে প্লেক আস্তে আস্তে শক্ত হয়ে টারটার বা ক্যালকুলাসে রুপান্তরিত হয় ৷ তখন আর ব্রাশের মাধ্যমে এটি তুলে ফেলা যায় না ৷ তখন দাঁতের রং হলদে দেখা যায় ৷

দাঁত হলদে করার পিছরে আরও রয়েছে খাদ্য ও বদঅভ্যাস ৷ কফি, চা, পান, রেড ওয়াইন এমনকি কিছু ফল খাওয়ার ফলে দাঁতের উপরিভাগে দাগ পড়তে পারে ৷ নিয়মিত দাঁত পরিষ্কার না করার বদঅভ্যাস দাঁত হলুদ করে ফেলে ৷ ধূমপান ও তামাক দ্রব্য সেবন দাঁত হলুদ করে ফেলে ৷

হলুদ দাঁত সাদা করার ঘরোয়া উপায়

এখন যদি আপনার দাঁত হলুদ হয়ে যায়, তাহলে কি করবেন ৷ তাই আজ আমরা আপনাদের এমন কিছু ঘরোয়া উপায়ের কথা বলছি যা আপনার দাঁত সাদা মুক্তোর মতো উজ্জ্বল দেখাবে এবং দাঁতের স্বাভাবিক রং বজায় রাখতে সাহায্য করবে৷ এটি আপনার দাঁতকেও সুস্থ ও মজবুত করবে।

এর পাশাপাশি আপনি যদি আপনার দাঁতকে সবসময় চকচকে ও সাদা রাখতে চান, তাহলে আপনাকে আপনার কিছু খারাপ অভ্যাস যেমন ধূমপান, তামাক, চা, পান এবং অতিরিক্ত কালো কফি খাওয়া বাদ দিতে হবে ৷ নিয়মিত দিনে দুইবার(সকাল ও রাত্রে) খাওয়ার পর ব্রাশ করতে হবে ৷

দাঁত পরিষ্কার রাখার জন্য ডাক্তার সকাল এবং রাতে খাওয়ার পর দাঁত ব্রাশ করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন । এটি আপনার দাঁতকে মজবুত ও চকচকে রাখে। তবে কারও কারও দাঁত দুবার ব্রাশ করার পরও হলুদ থেকে যায়। এমন পরিস্থিতিতে দাঁতের হলদে ভাব দূর করতে নিচের কার্যকরী ঘরোয়া উপায়গুলো অবলম্বন করতে পারেন।

০১. বেকিং সোডার মাধ্যমে দাঁত সাদা করার উপায়

বেকিং সোডা দাঁত সাদা করার জন্য একটি জনপ্রিয় প্রাকৃতিক প্রতিকার হিসেবে কাজ করে ৷ NCBI-তে প্রকাশিত একটি সমীক্ষা অনুসারে, বেকিং সোডা দাঁতের পৃষ্ঠ থেকে দাগ দূর করতে সাহায্য করে ৷ কেননা বেকিং সোডায় রয়েছে হাইড্রোজেন পারক্সাইড, যা ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলতে সাহায্য করে।

বেকিং সোডার মাধ্যমে দাঁত সাদা করার জন্য একটি ব্রাশ ভিজিয়ে এতে সামান্য কিছু বেকিং সোডা নিয়ে দাঁত ব্রাশ করা যেতে পারে ৷ বেশি হলদে দাগ রয়েছে এমন জায়গায় একটু বেশি ঘষতে হবে ৷ আনুমানিক দুইমিনিট ব্রাশ করে তারপর ধুয়ে ফেলুন ৷ এটি দাঁতের হলুদ আস্তরণ দূর করে পাশাপাশি দাঁতে ক্ষারীয় পরিবেশ তৈরি করে ব্যাকটেরিয়া বৃদ্ধিতে প্রতিকূল পরিবেশ তৈরি করে ৷ তবে এটি করতে অনেকের ভয় থাকতে পারে ৷ দ্য জার্নাল অফ দ্য আমেরিকান ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশনের প্রকাশিত এক তথ্যে এই পদ্ধতিটিকে একেবারে নিরাপদ বলে ঘোষণা করা হয়েছে। তবে এটি রেগুলার না করাই ভালো ৷

০২. দাঁত সাদা করতে তেলের ব্যবহার

হলুদ দাঁত সাদা করতে নারকেল তেল বা তিলের তেল অথবা সূর্যমুখী তেল ব্যবহার করতে পারেন। আপনাকে যা করতে হবে তা হলো আপনার হাতের আঙ্গুলের মাথায় কিছু নারকেল তেল নিয়ে দাঁতের ঘষতে হবে । তারপর পর্যাপ্ত পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এবং পরে ব্রাশ করুন। এটি আপনার কাছে অদ্ভুত মনে হলেও, নারকেল তেলে উপস্থিত লরিক অ্যাসিড দাঁতে প্লাক সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলে এবং দাঁতের হলদেভাব সাদা করতে সাহায্য করে।

০৩. কলা, কমলা বা লেবুর খোসা দিয়ে দাঁত সাদা করার উপায়

কলা, কমলা বা লেবুর খোসায় দাঁত সাদা করার উপাদান রয়েছে ৷ কলার খোসাতে রয়েছে পটাসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ম্যাঙ্গানিজের মতো খনিজ, যা দাঁতকে সাদা করে ভূমিকা রাখে ৷ আবার কমলা বা লেবুর খোসাতে রয়েছে সাইট্রিক অ্যাসিড, যা দাঁতের উপরিভাগের দাগ দূর করতে সাহায্য করে ৷ কলা, কমলা বা লেবুর খোসা দিয়ে দাঁতের হলুদ দাগ দূর করতে পাকা ফলের ভিতরের অংশ দাঁতে আলতোভাবে ঘষতে হবে ৷ প্রায় দুইমিনিটের জন্য এভাবে ঘষতে পারেন ৷ তারপর ধুয়ে ফেলুন ৷

০৪. ফল ও শাকসবজি খাওয়ার মাধ্যমে দাঁত সাদা করা

উচ্চ আঁশযুক্ত ফল এবং শাকসবজি খাওয়ার মাধ্যমে মুখে থাকা অ্যাসিড নিরপেক্ষ করা যেতে পারে, যা ব্যকটেরিয়া বৃদ্ধিতে বাধা দেয় ৷ আপেল, গাজর এবং সেলারির মতো আঁশযুক্ত খাবার খাওয়ার মাধ্যমে দাঁতের উপরিভাগের দাগ দূর করতে সাহায্য করতে পারে ৷ মটরশুটি এবং পালং শাকের মতো সবুজ শাক প্রচুর পরিমাণে লালা উৎপন্ন করে। এটি অ্যাসিড ফ্লাশ করতেও সাহায্য করে।

আপনার দাঁত সাদা করার জন্য দাবি করা হয়েছে, এমন দুটি ফল হল আনারস এবং স্ট্রবেরি। রিসার্চ গেটের একটি গবেষণা(রেফ) অনুসারে, আনারসে পাওয়া “ব্রোমেলাইন” নামক একটি এনজাইম যা কার্যকরভাবে দাঁতের দাগ দূর করতে পারে ।

০৫. হাইড্রোজেন পারক্সাইড দ্বারা হলুদ দাত সাদা

হাইড্রোজেন পারক্সাইড সাধারণত ওষুধের দোকানে পেয়ে যাবেন । ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি ইনফরমেশনের প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, হাইড্রোজেন পারক্সাইড প্রাকৃতিক ব্লিচিং এজেন্ট হিসেবে কাজ করে। এটি মুখের ক্ষত সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া দূর করতেও সাহায্য করে। এটি করতে সামান্য হাইড্রোজেন পারক্সাইড এবং কিছু পানি নিয়ে 1.5% থেকে 3% ঘনত্বের একটি দ্রবণ তৈরি করে নিতে হবে ৷ তারপর মুখে নিয়ে গার্গল বা কুলকুচি করুণ ৩০ সেকেন্ড থেকে এক মিনিটের জন্য ৷ তারপর ভালো করে ধুয়ে ফেলুন ৷ হাইড্রোজেন পারক্সাইড থেকে নির্গত অক্সিজেন দাঁতের উপরিভাগের দাগ দূর করতে সাহায্য করে ৷ তবে এটি করতে অবশ্যই সাবধানে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুসারে করবেন ৷

দাঁতের কালো দাগ দূর করার উপায়(Ways to remove black stains on teeth)

অনেকের দাঁতে কালো দাগ দেখা যায় ৷ এটি কেন হয় এবং কিভাবে সহজে দাঁতের কালো দাগ দূর করা যায় জানতে চান অনেকেই ৷ তবে দাঁতের কালো দাগ আসলে কি বা কেন হয় ৷ দাঁতের কালো দাগ মূলত দাঁতের ক্ষয় বা গর্তকে বুজায় ৷ দাঁতের জমে থাকা প্ল্যাক(ব্যকটেরিয়া ও খাদ্যকণা) বহুদিন ধরে জমে দাঁতের এনামেল ক্ষয়কারী অ্যাসিড তৈরি করে এবং দাঁতের গর্ত সৃষ্টি করে, যা দাঁতের কালো দাগ হিসেবে দেখা যায় ৷

এছাড়াও কিছু খাবার এবং বদঅভ্যাস দাঁত কালো করতে অবদান রাখে ৷ পান, সুপারি, জর্দা, তামাক বা ধূমপান দাঁতে কালো সৃষ্টিতে অবদান রাখে ৷

তাই দাঁতে যেন কালো দাগ না পড়ে সেজন্য নিয়মিত সকাল ও রাত্রে খাওয়ার পর দাঁত ব্রাশ করতে হবে ৷ দাগ সৃষ্টিকারি খাবার খাওয়ার পর ভালো করে মুখ কুলকুচি করতে হবে ৷ ধূমপান দাঁতে দাগ পড়তে অবদান রাখে, তাই এই বদঅভ্যাসটি বাদ দিতে হবে ৷ দাঁতের যত্নে নিয়মিত একজন দক্ষ ডেন্টিস্টের পরামর্শ নিতে হবে ৷

দাঁত সাদা করতে দাঁতের স্কেলিং করা(Dental scaling to whiten teeth)

দাঁত হলুদ হওয়া বা কালো হওয়া সবই দাঁতের অযত্মের ফল ৷ ডাক্তার সবসময় পরামর্শ দিয়ে থাকেন দিনে অন্তত দুই বার(সকাল ও রাত) খাওয়ার পর ভালো করে ডেন্টাল টুথপেস্ট দিয়ে মুখ ব্রাশ করা ৷ অথচ অবহেলা ও অযত্মের কারনে দেখা দেয় দাঁতের বিভিন্ন সমস্যা ৷

নিয়মিত দাঁত ব্রাশ না করলে মুখের ব্যকটেরিয়া এবং আমরা যে খাবার খাই সেই খাদ্যকণার সাথে মিশে ডেন্টাল প্ল্যাক তৈরি করে ৷ এই প্ল্যাক উঠে যায় যদি নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করা হয় ৷ অন্যথায় প্ল্যাক শক্ত হয়ে ধীরে ধীরে শক্ত আবরণে দাঁতে টারটার বা ক্যালকুলাস তৈরি করে ৷ তখন আর সাধারণ ব্রাশ করার মাধ্যমে এটি তুলে ফেলা সম্ভব নয় ৷ তখন দাঁতের রং হলদেটে দেখা যায় ৷ দেখা যায়, মুখের নানা সমস্যা, মাড়ির প্রদাহ, মাড়ি ফুলে যাওয়া, রক্ত পড়া ইত্যাদি ৷

এমতাবস্থায় আমাদের যেতে হয় একজন ডেন্টিস্টের কাছে ৷ ডাক্তার সবকিছু দেখে দাঁতের ময়লা কিংবা হলুদ আস্তরণ দূর করতে দাঁতের স্কেলিং করার পরামর্শ দিয়ে থাকে ৷ যা স্বাভাবিকভাবে প্রত্যেকের বছরে দুইবার স্কেলিং করার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে ৷ স্কেলিং করলে দাঁতের জমে থাকা ময়লা দূর হয় এবং দাঁত হয় চকচকে সাদা ৷

আরও পড়ুনঃ

  1. দাঁতের স্কেলিং কি এবং কেন দাঁতের স্কেলিং করবেন ৷
  2. মুখে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ কি এবং করণীয় কি ৷
  3. আক্কেল দাঁত তুললে কি সমস্যা হয় বিস্তারিত ৷
  4. দাঁতের মাড়ি ফুলা সমস্যা এবং করণীয় ৷

Disclaimer: উল্লেখিত তথ্য শুধুমাত্র সাধারণ তথ্যের উদ্দেশ্যে এবং একটি ধারনা নেওয়ার জন্য ৷ এটি কখনই দক্ষ চিকিৎসকের বিকল্প হতে পারে না ৷ তাই দাঁতের যেকোনো চিকিৎসার জন্য একজন দক্ষ ডেন্টিস্টের সরণাপন্য হবেন ৷